রাউটার ও অনুর জন্য নিজেই তৈরি করে নিন ফুল অটোমেটিক পাওয়ারব্যাংক।

ইলেক্ট্রনিক্স

আসসালামু আলাইকুম। বর্তমান সময়ে কারেন্ট না থাকা যেন একটি কমন বিষয় হয়ে গেছে। কারেন্ট না থাকার কারনে আমরা বেশিরভাগ ওয়াইফাই ইউজার রা ডেটার অভাবে ভুগে থাকি। ওয়াইফাই থাকা সত্তেও ডেটা কিনতে হয়।

আজ আপনাদের এই সমস্যার সমাধান নিয়ে এসেছি। কিভাবে খুব কম টাকায় নিজেই বানিয়ে নেবেন একটি পাওয়ারফুল ওয়াইফাই পাওয়ারব্যাংক। কারেন্ট চলে গেলে অটো পাওয়ারব্যাংক এর মাধ্যমে রাউটার আর অনু চালু হয়ে যাবে, এবং কারেন্ট আসার সাথে সাথে অটো চার্জ শুরু হয়ে যাবে। ফুল চার্জ হলে অটোমেটিক চার্জ অফ হয়ে যাবে।

পাওয়ারবাংক কি?

পাওয়ারব্যাংক হলো এমন একটি ডিভাইস যেখানে পাওয়ার সঞ্চয় করে রাখা হয়। এখানে পাওয়ার হলো ইলেক্ট্রিসিটি। এটা সঞ্চয় করে রাখা হয় পাওয়ারব্যাংক এ। যেন পাওয়ার না থাকলে এই পাওয়ারব্যাংক থেকে পাওয়ার নিয়ে অন্যান্য ডিভাইস চালানো যায়। এটা ইনভার্টার না। ইনভার্টার আলাদা একটা জিনিস। ইনভার্টার হলো UPS, IPS সেগুলো। যেগুলো থেকে AC কারেন্ট পাওয়া যায়। কিন্তু পাওয়ারব্যাংক থেকে DC কারেন্ট পাওয়া যায়।

পাওয়ারব্যাংক তৈরি করতে কি কি প্রয়োজন?

প্রয়োজনীয় জিনিস গুলো আপনার আশেপাশের ইলেক্ট্রনিক দোকান থেকে কিনে আনুন। জিনিস গুলো অনলাইনে কই থেকে কিনবেন তা জিনিস গুলোর নামের ওপর ক্লিক করলেই দেখতে পাবেন।

১. 6v battery

. DC to DC Step up module

৩. রাউটার চার্জিং মেল পিন ২ টা

৪. রাউটার চার্জিং ফিমেল পিন ২ টা

৫. ৯ ভোল্ট চার্জার (battery চার্জ দেওয়ার জন্য)

৬. রিলে ১২ ভোল্ট ১ টি

৭. রিলে ৬ ভোল্ট ১ টি

৮. BC547 transistor ১ টি

৯. রেক্টিফায়ার ডায়োড ৩ টি

১০. ২ টি ২ কালারের লাইট

১১. প্রিসেট ১০K একটি

১২. রেজিস্টার 1k ২ টি

১৩. অনু সাধারনত ১২ ভোল্টের হয়। আপনার রাউটার যদি ১২ ভোল্ট না হয়। যদি ৫ ভোল্টের রাউটার হয় বা ৯ ভোল্ট এর রাউটার হয় তাহলে প্রয়োজন হবে ৫ ভোল্টের জন্য 7805 transistor ১ টি অথবা ৯ ভোল্টের জন্য 7809 transistor ১ টি।

বিঃ দ্রঃ কিভাবে বুঝবেন আপনার রাউটার কত ভোল্টের? আপনার রাউটার এর যে এডাপ্টার আছের তার নিচে অথবা ওপরে লেখা পড়ুন। সেখানে লেখা আছে সেটা কত ভোল্ট আউটপুট দেয়। যেই ভোল্ট লেখা থাকবে আপনার রাউটার চালাতে তত ভোল্ট প্রয়োজন।

১৪. অবশ্যই অনুর ১২ ভোল্টের এডাপ্টার টিও লাগবে। রাউটারের এডাপ্টার না হলেও চলবে। যদি রাউটার ১২ ভোল্ট হয় তাহলে রাউটার বা অনু যেকোনো একটির এডাপ্টার হলেই চলবে।

এই পাওয়ারব্যাংক টি কতখন ব্যাকআপ দেবে?

এই পাওরবাংকটি মোটামোটি পাওয়ারফুল। তবে রাউটার আর অনুর পাওয়ার হিসেবে ব্যাকআপ পাবেন। আমি আমার সিংগেল ব্যান্ড রাউটার এবং অনু ৪-৫ ঘন্টা একটানা ব্যাকআপ পাই। নতুন ব্যাটারি হলে আপনিও এরকম সার্ভিস পাবেন। তবে যদি ডুয়াল ব্যান্ড এর রাউটার হয় তাহলে ব্যাকআপ কম পাবেন ৩ ঘন্টার মতো পাবেন।

কিভাবে সার্কিটটি তৈরি করবেন?

এটি তৈরি করা একদম সহজ। নিচের ডায়াগ্রাম টি দেখে সেভাবে কানেকশন দিন।

ব্যাটারি চার্জিং অটোকাট সার্কিট ডায়াগ্রামঃ

এখানে যে আউটপুট টি পেলেন সেটা যাবে ব্যাটারি এর মধ্যে। ব্যাটারির পজেটিভ এ আউটপুট পজেটিভ কানেক্ট করুন ও নেগেটিভ এ আউটপুট নেগেটিভ কানেক্ট করুন।

এরপর ব্যাটারি সহ রাউটারের কানেকশনটি টি এভাবে করে নিনঃ

এভাবে কানেক্ট করে ফেলুন। ভোল্টমিটার দিয়ে মডিউলটি মেপে দেখুন আউটপুট ১২ ভোল্ট আছে কিনা। না থাকলে মডিউলের সাথে থাকা প্রিসেট ঘুড়িয়ে ভোল্ট করে নিন ১২ ভোল্টে।

বিঃ দ্রঃ যদি আপনার রাউটার ১২ ভোল্টের না হয় তাহলে কি করবেন? রাউটার ৫ ভোল্টের হলে রাউটারে কানেকশন যাওয়ার আগে যে মেল পিন লাগাবেন ওই মেল পিনে 7805 transistor লাগিয়ে নিন। এমন ভাবে লাগাবেন যেন শুধু রাউটারেই ৫ ভোল্ট যায় আর অনুতে ১২ ভোল্ট ই যায়। আর যদি রাউটার ৯ ভোল্ট হয় তাহলে সেইম ভাবে 7809 লাগাবেন। কিভাবে কানেকশন করবেন তা নিচে দেখে নিন।

এভাবে কানেকশন করে নিলেই হয়ে যাবে আপনার রাউটারের জন্য একটি ভালো পাওয়ারফুল পাওয়ারব্যাংক।

যেকোনো প্রয়োজনে আমাকে যেকোনো প্রশ্ন করতে পারেন এখানে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *